আলাপন

কেউ লেখেন শখে আবার কেউ লিখতে আসেন পেটের তাগিদে, অর্থ উপার্জনের জন্যে। কেউ লিখতে শুরু করে ভাবেন, আবার কেউ নানা ভাবনা ভেবে নিয়ে লিখতে বসেন। মোদ্দাকথা লেখালিখির জগতে কোনও বীজগনিতের সূত্র চলে না। কে কেন লিখছেন, কে কী লিখবেন তা সঠিকভাবে বলতে পারেন নির্দিষ্ট রচনাকারই। সৃষ্টির নানা গোলোকধাঁধার রহস্যভেদের চাবিকাঠি রাখা থাকে তাঁর কাছেই। সেই জন্যই তো তাঁর কাছে ছুটে যাওয়া। লেখক বা গুনী মানুষদের সঙ্গে আলাপ করে সমৃদ্ধ হতে চায় ‘গল্পের সময়’। জেনে নিতে চায় তাঁর উত্তরণের, লড়াইয়ের নানা খুঁটিনাটি। গল্প, সাহিত্য, সংস্কৃতির সঙ্গে যুক্ত মানুষজনের কাছে পরশমণির ছোঁয়া পেতেই আমাদের এই আলাপন বিভাগ।


  • ভগীরথ মিশ্র’র লেখালিখি

    [ বাংলা সাহিত্যে স্থায়ী জায়গা করে নিয়েছে  তাঁর  লেখা সুবৃহত উপন্যাস ‘ মৃগয়া’। একে কেউ বলেছেন মহাসাহিত্য আবার কেউ  বলেছেন ভারতীয় উপন্যাসের মডেল। তাঁর লেখালিখি হয়ে উঠেছে  বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের গবেষনার বিষয়।  তিনি ভগীরথ মিশ্র। যাঁর লেখায় পাঠক খুঁজে পান মাটির টান।  তিনি মনে করেন গোটা ভারতবর্ষটাই কৃষিপ্রধান আধা সামন্ততান্ত্রিক দেশ। গোটা দেশটাই  একটা গ্রাম। […]


  • চেনা লেখক অচেনা কাহিনী

    চেনা জানা জগৎটাই আমাদের কাছে ধোঁয়াশা। এই জগতটারই কোন সঠিক চেহারা আমরা বুঝি না যতক্ষণ না অচেনা নানা কাহিনী, চেনার জগতের হাত ধরে আমাদের চেনা মানুষগুলোকে আরও ভালভাবে চিনিয়ে দিয়ে যায়। তাই অচেনা মানুষরা আমাদের পরিচিত জগতের মধ্যে যতটা না প্রভাব ফেলে চেনা লোকের নতুন নতুন না জানা ঘটনা আমাদের বেশি করে ভাবায়। লেখক পাঠকের […]


  • উদয়ের কথা

    [ভারতবর্ষে নৃত্যের আধুনিক ধারার প্রবর্তক হিসেবে উদয়শঙ্করকে মানা হয়।ভারতীয় নৃত্যশিল্পকে   বিশ্বের  দরবারে নিজ দক্ষতায় প্রতিষ্ঠা করেছিলেন তিনি। সৃজনশীল নৃত্যজগতের নটরাজ তিনি।ভারতীয় নৃত্য ধারায় ‘ব্যালে’ পদ্ধতির সর্বশ্রেষ্ঠ প্রয়োগশিল্পী হিসেবে উদয়শঙ্করকে মানা হয়।আজও প্রবহমান  তাঁর সেই নৃত্যধারাকে  বহন করে নিয়ে যাওয়ার গুরুদায়িত্ব উদয়শঙ্কর নিজ হাতে যার কাঁধে তুলে দিয়েছিলেন তিনি শান্তি বসু।টানা ন’বছর উদয়শঙ্করের দলের ব্যালে মাস্টার […]


  • হাঁসুলী বাঁকের কথা

    ২০০০ সালের গোড়ার দিক। আমি তখন দুর্গাপুরে। বাংলা টেলিভিশনের খবরে সবে মাত্র জোয়ার এসেছে। একটু অন্য ধরনের খবরের তখন দারুণ চাহিদা। আমাকে প্রায়শই অন্য ধরনের খবরের খোঁজ দিতেন কাজি খায়রুল আনম সিদ্দিকী। তখন তিনি ভূমি রাজস্ব দফতরে উচ্চ পদে কাজ করতেন। আমার প্রাক্তন সহকর্মী তথা সাংবাদিক কাঞ্চনদার বাবা হলেও, মজার কথা, এমন ধরনের খবর তিনি […]


  • ইসমত চুঘতাই সম্পর্কে সাদাত হাসান মান্টো

    [ইসমত চুঘতাই সম্পর্কে সাদাত হাসান মান্টোর এই লেখাটি প্রথম প্রকাশিত হয়েছিল ‘দ্য  অ্যানুয়্যাল অব উর্দু স্টাডিজ’ পত্রিকায়। এই পত্রিকার সম্পাদক ছিলেন মহম্মদ উমর মেনন। লেখাটি উর্দু থেকে ইংরাজিতে অনুবাদ করেছেন মহম্মদ আসাবুদ্দিন। সেটিরই বাংলা অনুবাদ করেছেন দেবাশিস মজুমদার।] ইসমত সম্পর্কে আমি যা লিখছি তা কোনো লজ্জা থেকে নয়। আসলে তাঁর কাছে একটা ঋণ রয়ে গেছে। […]


  • সন্দীপন চট্টোপাধ্যায়ের সাক্ষাৎকার

    [ বাংলা সাহিত্যে একটি বিতর্কিত নাম সন্দীপন চট্টোপাধ্যায়। বাংলা সাহিত্যে এক স্বতন্ত্র পাঠক গোষ্ঠী তৈরি করেছিলেন সন্দীপন। লিখন শৈলীতে সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের ভিন্ন মেরুতে অবস্থান সত্ত্বেও আজও সমান আলোচিত তিনি। সন্দীপনকে নিয়ে লিটল ম্যগাজিন ছাড়া অন্যত্র সেভাবে আলোচনা হয়নি বললেই চলে। নব্বইয়ের দশকে সন্দীপন ভাবনায় আলোড়িত হন তাঁর এক নিবিড় পাঠক প্রবীর চক্রবর্তী। সন্দীপন সান্নিধ্যে তাঁর […]


  • সাহিত্যে ঐতিহাসিকতা

      আমরা যে ইতিহাসের দ্বারাই একান্ত চালিত এ কথা বার বার শুনেছি এবং বার বার ভিতরে খুব জোরের সঙ্গে মাথা নেড়েছি। এ তর্কের মীমাংসা আমার নিজের অন্তরেই আছে, যেখানে আমি আর-কিছু নই, কেবলমাত্র কবি। সেখানে আমি সৃষ্টিকর্তা, সেখানে আমি একক, আমি মুক্ত; বাহিরের বহুতর ঘটনাপুঞ্জের দ্বারা জালবদ্ধ নই। ঐতিহাসিক পণ্ডিত আমার সেই কাব্যসৃষ্টির কেন্দ্র থেকে […]


  • ইসমত চুঘতাই-এর সাক্ষাৎকার

      [বর্তমান সাক্ষাৎকারটি ১৯৭২ সালে ‘ মেহফিল’ এ প্রকাশিত হয়েছিল। উর্দু সাহিত্যে ইসমত চুঘতাই এর গুরুত্ব কে মনে রেখে সাক্ষাৎকারটিকে কে ইংরাজি থেকে বাংলায় অনুবাদ করেছেন ‘গল্পের সময়’ পরিবারের অন্যতম সদস্য দেবাশিস মজুমদার ।এবার তার প্রথম পর্ব।]   উর্দু ছোটো গল্পের সূচনা পর্বের পথিকৃৎ  হিসাবে আপনাকে গণ্য করা হয়,আপনার একদম  প্রথম দিককার লেখালিখি নিয়ে সংক্ষেপে  […]


  • সাহিত্যের সাধনা

      রাজনীতি বা সমাজ–সংস্কারাদির জন্য সঙ্ঘ– সমিতির বৈঠক এবং সাহিত্য – সভার মধ্যে পার্থক্য অনেকখানি। পূর্বোক্ত ব্যাপারগুলিতে সঙ্ঘগঠন, অধিবেশন ইত্যাদি অপরিহার্য। জনসাধারণের দৈনন্দিন জীবনযাপনের প্রাথমিক প্রয়োজনাবলীর সঙ্গেই প্রধানতঃ এই কর্মবিভাগগুলি সংশ্লিষ্ট, বহুর সঙ্গে প্রত্যক্ষভাবে মিলিত না হয়ে এখানে প্রচেষ্টা সফল হয় না। অন্যদিকে, সাহিত্য যদিও সর্ব–সাধারণের মধ্যে আন্তরিকতম মিলনের যোগসূত্রস্বরূপ এবং যদিও চারিপাশের মানুষকে বাদ […]


  • জমিদার রবীন্দ্রনাথ

    রবীন্দ্রনাথকে জমিদার হওয়ার ব্যবস্থা করে গিয়েছিলেন তাঁর পিতামহ প্রিন্স দ্বারকানাথ ঠাকুর, যাঁকে রবীন্দ্রনাথ অস্বীকার ও উপেক্ষা করার সবরকম চেষ্টা করেছিলেন। প্রিন্স দ্বারকানাথ ছিলেন বিরল প্রতিভার মানুষ। তিনি নানা দিকে বিশাল ব্যবসা বাণিজ্যের স্থপতি ছিলেন। প্রকৃতপক্ষে তাঁকে এ বিষয়ে সারা ভারতেই পথিকৃৎ বলা যায়। বিপুল ধন সম্পত্তির মালিক হয়েও দূরদৃষ্টি সম্পন্ন দ্বারকানাথ বুঝেছিলেন যে তাঁর উত্তরাধিকারীদের […]


  • ডোন্ট পারসিউ থিংস,লেট দেম পারসিউ ইউ- রাস্কিন বন্ড

    ‘তিনি নিঃসঙ্গতাকেও বাঙ্ময় করে তুলেছিলেন’- বলেছেন ভি.এস. নইপল। তিনি বলতে রাস্কিন বন্ড। জন্মেছেন হিমাচল প্রদেশের কসৌলিতে। জন্মসূত্রে ব্রিটিশ হলেও মাঝখানে বছর চারেক বাদে ভারত ছেড়ে আর পা বাড়াননি বিদেশে। মাত্র সতেরো বছর বয়সে প্রথম উপন্যাসের জন্য পেয়েছিলেন আর্ন্তজাতিক পুরস্কার। আকাদেমি পেয়েছেন ১৯৯৩তে। ৯৯’ তে পেয়েছেন পদ্মশ্রী। ২০১৪তে পদ্মভূষণ। তাঁর লেখা থেকে জনপ্রিয় সিরিয়াল ছাড়াও ছবি […]


  • ছবির রবীন্দ্রনাথ

    সাতষট্টি বছর বয়েসে ছবি আঁকার নেশা পেয়ে বসলো রবীন্দ্রনাথকে। তদ্দিনে কবিতা লিখে নোবেল প্রাইজও পাওয়া হয়ে গেছে তাঁর। আর সত্যিকথা বলতে কি কবিতার ভাষাও গেছে অনেকদূর এগিয়ে। ছবি দেখে ভক্তজন আহা আহা করতে লাগলো। ‘ঠাকুর’ এঁকেছে বলে কথা, খারাপ হতেই পারে না, নৈব নৈব চ। কিন্তু শুধু ভক্তজন বললেই তো আর চলে না, তাত্ত্বিক লোকজনের […]


  • আমার কাজ ৮ থেকে ৮০র জন্য – নারায়ন দেবনাথ

    [বাঁটুল দি গ্রেট, হাঁদা-ভোঁদা আর নন্টে-ফন্টে – ছোটোবেলায় এদের খপ্পরে পড়েনি এমন বাঙালি খুঁজে পাওয়া ভার। বাঁটুল,হাঁদা-ভোঁদার কাণ্ডকারখানা পড়ার জন্য প্রতি মাসেই নতুন ‘শুকতারা’ নিয়ে কাড়াকাড়ি পড়ে যেত আজকের বড়দের মধ্যে। আজ কয়েকশো চ্যানেলের টিভি আর ইন্টারনেটের হাত ধরে বিশ্ববাজারের হাজারো কমিকস ও কার্টুন চরিত্র হুড়মুড়িয়ে বাঙালির ঘরের ভেতর ঢুকে পড়লেও হাঁদা-ভোঁদা,নন্টে-ফন্টের সৃষ্টিতে আজও নিরলস […]


  • নববর্ষে বইপাড়ার আড্ডা

    [পৃথিবীর যে খানেই বাঙালি থাকুক না কেন বাংলা নববর্ষের প্রথম দিন বা পয়লা বৈশাখ তার কাছে নিয়ে আসে এক বিশেষ অনুভব । ঢাকার বৈশাখী উৎসবের একটি আবশ্যিক অঙ্গ মঙ্গল শোভাযাত্রা। সাংস্কৃতিক সংগঠন ছায়ানটের সঙ্গীতানুষ্ঠানের মাধ্যমে আহ্বান করা হয় নতুন বছরের সূর্যকে। বাংলাদেশ, পশ্চিমবঙ্গ বা ত্রিপুরার বিভিন্ন জায়গায় বসে বৈশাখী মেলা। নববর্ষ মানেই নতুন জামাকাপড়, আত্মীয়স্বজন ও বন্ধু-বান্ধবের বাড়িতে […]


  • গল্পের উপাদান আমি জীবন থেকে পাই-কৃষ্ণা বসু

    গল্পের সময় – আপনি মূলত কবি। কবিতার পাশাপাশি আপনি গল্পও লেখেন। আপনি কবে থেকে গল্প লিখছেন? কৃষ্ণা বসু – আমি আট বছর বয়স থেকে কবিতা লিখছি। প্রায় শৈশব থেকেই কবিতা লিখছি। আমি কবিতা আক্রান্ত। কোনও ঘটনার অভিঘাত আমার মধ্যে তরঙ্গ তৈরি করে এবং তা কবিতায় প্রকাশিত হয়ে যায়। কোনও অভিজ্ঞতা যা কবিতার আয়তনের চেয়ে বড় […]


  • লেখালিখি আসে নিঃসঙ্গতার গর্ভ থেকে – মনোজ দাস

      [ ভারতীয় সাহিত্যের বিশিষ্ট ছোটোগল্পকার, ঔপন্যাসিক ও প্রাবন্ধিক মনোজ দাস। মনোজ দাস ওড়িয়া ও ইংরাজি মিলিয়ে আশিটির ওপর বই লিখেছেন। সাহিত্য পুরস্কার প্রাপ্তির তালিকাও দীর্ঘ। ঝুলিতে রয়েছে সাহিত্য আকাদেমি, সরস্বতী সম্মান, উৎকলরত্ন, ডি.লিট,  শ্রীঅরবিন্দ পুরস্কার। সাহিত্য আকাদেমি তাদের সর্বোচ্চ সম্মান ‘ফেলো অব দি আকাদেমি’ অর্পণ করেছেন মনোজ দাসকে। অশীতিপর এই সাহিত্যিকের এই সাক্ষাৎকারটি গৃহীত […]


  • ছোটোবেলায় রবীন্দ্রনাথ ছিল অবশ্যপাঠ্য : গৌতম ঘোষ

      [বিশিষ্ট চলচিত্র পরিচালক গৌতম ঘোষ ১৯৯৫ সালে ‘গল্পের সময়’ পরিবারের অন্যতম সদস্য দেবাশিস মজুমদারের সঙ্গে দীপাবলির এক দ্বিপ্রাহরিক আড্ডায় নিজের বেড়ে ওঠা নিয়ে এক দীর্ঘ সাক্ষাৎকার দিয়েছিলেন অধুনালুপ্ত একটি বহুল প্রচারিত বাংলা সংবাদপত্রের জন্য। কিন্তু তৎকালীন সাংবাদিক দেবাশিসবাবু পেশাগত কারণে অন্য পত্রিকাগোষ্ঠীতে যোগদান করায় অপ্রকাশিত অবস্থায় পড়ে ছিল সাক্ষাৎকারটি। ‘গল্পের সময়’ সেই দীর্ঘ  আলাপচারিতাটির […]


  • উপযুক্ত সম্মান নেই অলংকরণ শিল্পীর : যুধাজিৎ সেনগুপ্ত

    [দীর্ঘ সময় ধরে বাংলা প্রকাশনা জগতে অলংকরণ বা ইলাস্ট্রেটর হিসেবে যুক্ত যুধাজিৎ সেনগুপ্ত। ৬০-এর দশকে বসুমতী, সপ্তাহ পত্রিকা থেকে  শুরু করে  হাল  আমলের ‘জাগো বাংলা’র পুজো সংখ্যা সবেতেই  সমানতালে  এঁকে চলেছেন তিনি। একজন ইলাস্ট্রেটর হিসেবে দীর্ঘ সময় ধরে কাজ করার নানা  অভিজ্ঞতার কথা আমাদের শুনিয়েছেন যুধাজিৎবাবু। বসন্তের এক সকালে তাঁর বাড়িতে বসে শিল্পীর কর্মজীবনের নানা প্রাপ্তি নানা অভিযোগের […]


  • শিশু সাহিত্য প্রায় লেখা হচ্ছে না – ষষ্ঠীপদ

    [ষষ্ঠীপদ চট্টোপাধ্যায় বাংলা শিশুসাহিত্য জগতে নক্ষত্র সমান। পঞ্চপাণ্ডবের স্রষ্টা প্রবীন এই সাহিত্যিক আজও ভ্রাম্যমান। হাওড়ার রামরাজাতলার বাড়িটা ওনার মতে বিশ্রামগৃহ।এখনও বছরের দশ মাস হিমালয়ের প্রান্ত থেকে প্রান্তরে ছুটে বেড়াতে ভালবাসেন। কয়েক মাসের বিশ্রাম নিতে ঘরে ফিরে আসেন। পঞ্চপাণ্ডবের অভিযান এখন লেখকের তীর্থভ্রমণে প্রাণ পেয়েছে। একইভাবে লেখকের কলম তাঁর মনের মতই সজীব। দু পায়ের মতই কলমও […]


  • মেয়েদের কথা সঠিক লিখতে পারে মেয়েরাই-কণা বসু মিশ্র

    [দীর্ঘ সময় ধরে লিখছেন কণা বসু মিশ্র।  নিজের লেখনীতে মেয়েদের বঞ্চনার কথা ,অত্যাচারিত হওয়ার কথা তুলে ধরেছেন বারবার। মেয়েদের কথা মেয়েরাই সবচেয়ে সঠিক ভাবে তুলে ধরতে পারেন বলে বিশ্বাস করেন তিনি। আজ থেকে প্রায় তিন যুগ আগে তাঁর বিয়ের পর যুগ্ম পদবি গ্রহণ যথেষ্ট আলোচনার বিষয় হয়ে দাড়িয়েছিল। বড় পত্রিকায় প্রথম গল্প প্রকাশ থেকে রাত […]


  • পাঠককে ভাবাতে চায় সপ্তর্ষি – সৌরভ

      [“ পাঠকের কোনও দায় নেই আপনি কলেজ স্ট্রিটে বসে কী বই বের করলেন তা খুঁজে পড়ার। কিন্তু প্রকাশক হিসাবে আমার দায় আছে তার কাছে পৌঁছানোর” – হ্যাঁ, এমন ভাবনা নিয়েই প্রকাশনা জগতে এসেছেন সৌরভ মুখোপাধ্যায়। খুব অল্প সময়েই পাঠকের দরবারে জায়গা করে নিয়েছে তাঁর সংস্থা সপ্তর্ষি প্রকাশন। বাংলা প্রকাশনার বাজার নিয়ে অন্যভাবে ভাবতে চান […]


  • সামাজিক দায় নয়, লেখক চান পাঠককে ছুঁতে – মৃদুল দাশগুপ্ত

        [ কবি হিসেবে দুই বাংলায় বিখ্যাত মৃদুল দাশগুপ্ত। কিন্তু কবিতার পাশাপাশি তিনি যে গল্পও লেখেন তা হয়ত বহু পাঠকেরই আজানা।  একান্ত একটি আলাপচারিতায় উঠে এসেছে তাঁর গল্প ও গল্প রচনা বিষয়ে নানা তথ্য। আলাপন বিভাগে গল্পের সময়ের হয়ে সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন চিন্ময় ভট্টাচার্য এবং সমীর ঘোষ। ]   গল্পের সময় – আপনি এই সময়ের […]


  • ‘গল্পমেলা’র বিশাল খরচ…আসলে ভূতে দেয় – গৌর বৈরাগী

    [প্রতি বছর হুগলি জেলার চন্দননগরে দু দিন ধরে হয় গল্প নিয়ে উৎসব ‘গল্পমেলা’। সাহিত্য নিয়ে এমন জমজমাট আড্ডা ও আলোচনার আসর ভূ-ভারতে আর একটিও হয় না বলে দাবি আয়োজকদের।গল্প নিয়ে ফি বছরের এমন আয়োজনের বিষয়ে বিশদে জানতেই গল্পমেলার অন্যতম উদ্যোক্তা গৌর বৈরাগীর সঙ্গে কথা বলেছে ‘গল্পের সময়’ ] গল্পের সময়  –  গল্পমেলার ভাবনা প্রথমে কীভাবে […]


  • বাংলা সাহিত্যে আমি বেঁচে আছি আমার মত করে – কিন্নর রায়

    গল্পের সময়     –    কিন্নরদা আপনি পুরো সময়ের লেখক, অর্থাৎ লিখেই জীবনধারণ করেন। বাংলাভাষায় লেখালিখি করে জীবনধারণ – এটা কতটা সহজ কতটা কঠিন? কিন্নর রায়       –     পুরো সময়ের লেখক নিশ্চয়ই – কিন্তু আমার স্ত্রী একটি চাকরি করতেন – সম্প্রতি অবসর নিয়েছেন। ফলে অর্থের ব্যাপারটা যদি পুরোটা আমাকে জোগাড়  করতে হত তাহলে খুব কঠিন পরিস্থিতির মধ্যে […]


যোগাযোগ


email:galpersamay@gmail.com

Your message has been sent. Thank you!

গল্পের সময় পরিবার
সমীর
অগ্নীশ্বর
দেবাশিস
চিন্ময়
পার্থ
মিতালি
জাগরণ
দেবব্রত

© 2016 গল্পের সময়। ডিজাইন করেছেন অগ্নীশ্বর। নামাঙ্কন করেছেন পার্থ।